**রংপুর নাগরিক সমাজ(RNS) সংগঠনের নিউজ পোর্টাল rnsnews24.com এ স্বাগতম।  *** প্রতিনিধি নিয়োগ*** রংপুর বিভাগের সকল জেলা ও রংপুর জেলার সকল উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগাযোগ- 01722-882770 ।  *** সবার আগে নির্ভুল সংবাদ পেতে নিয়মিত ভিজিট করুন।
১৫ জুন থেকে হাঁড়িভাঙ্গা আমের বাজারজাত শুরু

১৫ জুন থেকে হাঁড়িভাঙ্গা আমের বাজারজাত শুরু

১৫ জুন থেকে হাঁড়িভাঙ্গা আমের বাজারজাত শুরু

নিরাপদ, বিষমুক্ত ও পরিপক্ক হাঁড়িভাঙ্গা আম এর আনুষ্ঠানিকভাবে ১৫ জুন শুরু হবে বাজারজাত। হাড়িভাঙ্গা আম চাষি ও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে এ তারিখ নির্ধারণ করে দিয়েছে জেলা প্রশাসন। গত মঙ্গলবার (৭ জুন) জেলা প্রশাসন আম চাষিদের সাথে সমন্বয় করে উক্ত তারিখ নির্ধারন করে দেন। সেই সমন্বয় সভায় জেলা প্রশাসক আসিব আহসান ও জেলা পুলিশ সুপার ফেরদৌস আলী চৌধুরীসহ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। হাঁিড়ভাঙ্গা আম আশবিহীন হওয়ায় এবং অত্যন্ত সুমিষ্ট হওয়ার মানুষের কাছে অত্যন্ত জনপ্রিয়। শুরুতে রংপুর জেলার মিঠাপুকুর উপজেলার পদাগঞ্জসহ কয়েকটি এলাকায় ব্যাপক হাঁিড়ভাঙ্গা আমের চাষ হতো। এবারে ১ হাজার ৮৮৭ হেক্টর জমিতে আম চাষ হয়েছে। এ ছাড়াও নীলফামারীর সৈয়দপুর, সদর, দিনাজপুরের পার্বতীপুর, খানসামা, চিরিরবন্দর এলাকায় চাষ হয়েছে। গতবছরের তুলনায় এবারে ফলন কম হলেও হেক্টর প্রতি ১২-১৫ মন আম পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর। এদিকে সরকার নির্ধারিত সময়ের আগে বাজারে কিছু কিছু অসাধু ব্যবসায়ী হাঁড়িভাঙ্গা আম বাজারজাত করছে, যা হাঁড়িভাঙ্গা আমের জন্য ক্ষতিকর। তাই হাড়িভাঙ্গা আম আগাম বাজারজাত না করার জন্য আম চাষিদের অনুরোধ জানিয়েছেন প্রশাসন। কেননা আগাম লাভের আশায় আম বাজারজাত করলে হাঁিড়ভাঙ্গা আমের প্রকৃত স্বাদ পাওয়া যাবে না। হাঁিড়ভাঙ্গা আমের প্রতি মানুষের খারাপ ধারণা তৈরী হবে। এজন্য প্রতিবছরের মতো এবারো জেলা প্রশাসন হাড়িভাঙ্গা আম বাজারজাত করার তারিখ নির্ধারণ করে দিয়েছেন। এ বছর ২০০-২২০ কোটি টাকার আম বিক্রির আশা স্থানীয় আম চাষিদের। তবে আবহাওয়া ভালো থাকলে হাঁড়িভাঙ্গা আম দেশের চাহিদা মিটিয়ে এবারও বিদেশে রপ্তানি করার সম্ভাবনা রয়েছে। আর রপ্তানি হলে ভালো লাভের সম্ভাবনা রয়েছে। রংপুর মিঠাপুকুর খোড়াগাছ ইউনিয়নের আম চাষি আব্দুল জব্বার জানান, প্রতিবছর এই হাড়িভাঙ্গা আম জুনের শেষ সপ্তাহে বাজারে আসলেও এবারে ১৫ জুনের মধ্যে বাজারজাত করা হবে। ঘনঘন বৃষ্টি হওয়ার কারনে আগাম পরিপক্ক হয়েছে আম। মন্ডলপাড়ার বাগান মালিক রানা মিয়া জানান, এবারে আমের ফলন কম হলেও আবহাওয়া ভালো থাকায় লাভের সম্ভাবনা রয়েছে। ১৫ জুন সরকার আম বাজারজাতের তারিখ নির্ধারণ করে দিয়ে ভালো করেছে। তবে প্রশাসনকে এ বিষয়ে সচেতন ও সোচ্চার থাকার অনুরোধ করেন তিনি।

মিঠাপুকুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফাতেমাতুজ জোহরা  জানান, জেলা প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও কৃষি বিপনন অধিদপ্তর এবং আম চাষিদের সমন্বয়ে আলোচনা সাপেক্ষে ১৫ জুন আম বাজারজাত এর তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। এর আগে কেউ আম বাজারজাত করলে এবং প্রশাসনের নজরে আসলে সাথে সাথে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

রংপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক ওবায়দুর রহমান  বলেন, এবারে আম চাষিদের সাথে আলোচনা করে ১৫ জুন হাঁড়িভাঙ্গা আম বাজারজাত করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তাই সরকার নির্ধারিত সময়ের আগে আম বাজারজাত না করার জন্য আম চাষিদের অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি। অন্যদিকে হাঁড়িভাঙ্গা আম দেশ বিদেশে সরবরাহে এখনই প্লাষ্টিকের ক্যারেট, সুতলি, খাচা, পেপারসহ আনুষাঙ্গিক জিনিষের শুরু হয়েছে কেনাবেচা। গতবারের তুলনায় এবারের এসব প্রয়োজনীয় জিনিষপত্রের দাম বেড়েছে। ইতিমধ্যে প্রায় ২০ এর অধিক কুরিয়ার সার্ভিস প্রচার প্রচারণা চালাচ্ছে।

সংবাদটি সবাইকে জানাতে আপনার স্যোস্যাল অ্যাকাউন্ট দিয়ে শেয়ার করুন




©২০২২ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। আর এন এস নিউজ ২৪.কম।