**রংপুর নাগরিক সমাজ(RNS) সংগঠনের নিউজ পোর্টাল rnsnews24.com এ স্বাগতম।  *** প্রতিনিধি নিয়োগ*** রংপুর বিভাগের সকল জেলা ও রংপুর জেলার সকল উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগাযোগ- 01722-882770 ।  *** সবার আগে নির্ভুল সংবাদ পেতে নিয়মিত ভিজিট করুন।
দাবানল সম্মাননা পেলেন ভাওয়াইয়া শিল্পী ও গবেষক এ.কে.এম মোস্তাফিজুর রহমান

দাবানল সম্মাননা পেলেন ভাওয়াইয়া শিল্পী ও গবেষক এ.কে.এম মোস্তাফিজুর রহমান

দাবানল সম্মাননা পেলেন ভাওয়াইয়া শিল্পী ও গবেষক এ.কে.এম মোস্তাফিজুর রহমান

স্টাফ রিপোর্টার॥ শিল্পী, গীতিকার, সুরকার ও গবেষক হিসেবে “বীর মুক্তিযোদ্ধা খন্দকার গোলাম মোস্তফা বাটুল স্মৃতি দাবানল সম্মাননা” পেয়েছেন ভাওয়াইয়া অঙ্গনের প্রতিষ্ঠাতা এ.কে.এম মোস্তাফিজুর রহমান। সোমবার (২০ জুন) বিকেলে রংপুর টাউনহল মঞ্চে রনাঙ্গনের মহাকাল, উত্তরাঞ্চলের ইতিহাস ঐতিহ্যের ধারক-বাহক প্রাচীন পত্রিকা দৈনিক দাবানল এর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে এ সম্মাননা প্রদান করা হয়।
এ.কে.এম মোস্তাফিজুর রহমান রংপুর জেলার মিঠাপুকুর উপজেলায় জন্ম গ্রহণ করেন। কারমাইকেল কলেজ থেকে স্নাতকোত্তর সম্পুর্ণ করেন। তিনি ভাওয়াইয়া শিল্পী, নাট্যশিল্পী, কবি, গীতিকার, সুরকার, সংগ্রাহক, গবেষক, লেখক এবং সংগঠক হিসেবে কাজ করছেন।

এ.কে.এম মোস্তাফিজুর রহমান বাংলাদেশ বেতারে শিল্পী হিসেবে তালিকাভুক্তি-১৯৭০ খ্রিস্টাব্দে (ছোটদের আসরে) ও গীতিকার হিসেবে তালিকাভুক্তি-১৯৮৪ খ্রিস্টাব্দে এবং নাট্যশিল্পী হিসেবে তালিকাভুক্তি-১৯৯৩ খ্রিস্টাব্দে। এছাড়াও তিনি বাংলাদেশ টেলিভিশনে শিল্পী হিসেবে তালিকাভুক্তি-২০০১ খ্রিস্টাব্দে এবং গীতিকার হিসেবে তালিকাভুক্তি-১৯৮৬ খ্রিস্টাব্দে।
তিনি বাংলাদেশে ভাওয়াইয়া বিষয়ক বাংলাদেশ ভাওয়াইয়া পরিষদ রংপুর, ভাওয়াইয়া একাডেমি, ঢাকা ও ভাওয়াইয়া অঙ্গন প্রতিষ্ঠার সাথে সরাসরি যুক্ত ছিলেন।

এ.কে.এম মোস্তাফিজুর রহমানের পরিবারের ৪ জন সদস্যের সবাই বাংলাদেশ বেতার ও বাংলাদেশ টেলিভিশনের তালিকাভুক্ত শিল্পী এবং সংগঠক। তিনি কর্মজীবনে বাংলাদেশ বেতারের সংগীত প্রযোজক হিসেবে অবসর গ্রহণ করেন।
তার সম্পাদিত ত্রৈমাসিক সাময়িকী, ভাওয়াইয়া (ভাওয়াইয়া বিষয়ক সাময়িকীটি প্রকাশিত হচ্ছে ২০০৫ খ্রিস্টাব্দ থেকে)। আড়াই হাজারের বেশি তার লেখা গান রয়েছে।

 

সংবাদটি সবাইকে জানাতে আপনার স্যোস্যাল অ্যাকাউন্ট দিয়ে শেয়ার করুন




©২০২২ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। আর এন এস নিউজ ২৪.কম।